ঢাকাশনিবার , ২১ মার্চ ২০২০
আজকের সর্বশেষ সবখবর

রংপুরের গংগাচড়ায় বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার নামে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ

dailyvorerkhabor
মার্চ ২১, ২০২০ ৪:৩৫ অপরাহ্ণ
Link Copied!

বিশেষ প্রতিনিধিঃ রংপুরের গংগাচড়ায় বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার নামে প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে একটি অসাধু মহলের বিরুদ্ধে । প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগ ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ।এই স্লোগানকে সামনে রেখে বাংলাদেশের প্রত্যান্ত এলাকায় যখনই কোন ঘুষ বিহীন বিদ্যুৎ এর সুবিধা প্রদান করা হচ্ছে,ঠিক তখনই মাথাচারা দিয়ে উঠেছে এক শ্রেণীর অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ। অনিয়ম আর দূর্নীতির বিরুদ্ধে সরকারের স্বোচারকে অবহেলিত করে রংপুরের বিভিন্ন এলাকা থেকে বিদ্যুৎ সংযোগের নামে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে একটি মহল। জানা যায়, রংপুরের গংগাচড়া থানার দক্ষিণ কোলকন্দ ঘোনটারী বাঁধের পাড় ও চ্যাংডোবায় প্রায় দু-শতাধিক বাড়িতে বিদ্যুতের সংযোগের নামে ওয়ারিং করে রাখা হয়েছে প্রায় ২ বছর ধরে। বার বার বিভিন্ন ধরণের আশ্বাস দিলেও বছরের পর বছর পার হয়ে যাচ্ছে এই এলাকার সাধারণ জনগণের । উল্লেখ্য বিষয়টিকে গংগাচড়া ও পাগলাপীড় পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ডিজিএম ও জিএমকে বার বার লিখিত অভিযোগ করেও কোন সুরহা পায়নি এলাকাবাসী। ভুক্তভোগীদের মধ্য থেকে মোকলেছুর রহমান বলেন, এই এলাকায় বেশ কিছুদিন ধরে স্থানীয় পল্লী বিদ্যুৎ এর কিছু অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দদের সাথে যুক্ত হয়ে গ্রাহকদের কাছে থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়ে আসছে,রমজান আলী,জিল্লুর রহমান,রুহুল আমীন ও ইউনিয়ন জাপার সাধারণ সম্পাদক সেকেন্দার আলী ।ভোক্তভোগীদের কাছে থেকে টাকা হাতিয়ে নিয়ে বিদ্যুৎ সংযোগ না দিয়ে বরং নানা ভাবে ভয়ভীতি দেখানো হয় গ্রাহকদের। এ নিয়ে উচ্চ মহলের কাছে অভিযোগ করেও কোন সমাধান মেলেনি তাদের । একই গ্রামের আমিনুল ইসলাম বলেন, আমরা প্রায় দু বছর আগে প্রতিটি মিটার ৩০০০ হাজার করে মোট ৫৭ টি পরিবার টাকা দিয়েছি । কিন্তু এখন তারা সংযোগ ও দিচ্ছে না বরং নানা ভাবে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে।উল্লেখ্য, রংপুরের গংগাচড়ার এই বিদ্যুৎ ভ্রিদ্রান্তিকর সমস্যা সমাধানের জন্য সংশ্লিষ্ট মহলের সু-দৃষ্টি প্রয়োজন । যাতে করে পল্লী বিদ্যুতায়নের হয়রানি রোধে সমাধান মেলে তাদের।

✅ আমাদের প্রকাশিত কোন সংবাদের বিরুদ্ধে আপনার মতামত বা পরামর্শ থাকলে ই-মেইল করুনঃ dailyvorerkhabor@gmail.com ❌ বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।